দিনে দুপুরে একটি মেয়েকে বাসে তুলে ধর্ষণ.

দিনে দুপুরে একটি মেয়েকে বাসে তুলে ধর্ষণ.

ইসমাইল (৩২) নগরীর বায়াজিদ থানাধীন অক্সিজেন জংশনে একটি বাসে একটি টেক্সটাইল শ্রমিককে ধর্ষণ করার কথা স্বীকার করেছে। র‌্যাব-7 এর সহকারী পুলিশ সুপার, কাজী মোহাম্মদ তারিক আজিজ জানান, আটক অপরাধী মঙ্গলবার (২ জুন) দুপুরের পর আটক হওয়ার পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এই ঘটনার বিবরণ দিচ্ছে।

তিনি বলেছিলেন যে June ই জুন সকালে অক্সিজেন জংশনে কাজ করতে গিয়ে বৃষ্টির কারণে তিনি রাস্তার একপাশে আশ্রয় নিয়েছিলেন। ইসমাইল ও তার এক সহযোগী ওই মহিলাকে রাস্তার পাশের একটি বাসে ধর্ষণ করেছিল। ধর্ষণের পরে
সে তার মোবাইল ফোন এবং নগদ ছিনিয়ে নিয়ে কাউকে না বলার হুমকি দেয়। মেয়েটি সেদিন ভয়ে কাউকে এই ঘটনার খবর দেয়নি এবং পুলিশে কোনও অভিযোগ দেয়নি। পরে সোমবার ৮ জুন, মহিলা র‌্যাব-7 কার্যালয়ে এসে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পাওয়ার পরে র‌্যাব দল অভিযানের ডাক দেয়। র‌্যাবের সদস্যরা তাকে শহরের বায়েজিদ থানার অন্তর্গত শহীদনগর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।

মো। ইসমাইল শহীদনগর অঞ্চল নূর ইসলাম সরদার বাড়ি। আবু তাহেরের ছেলে। র‌্যাব জানিয়েছে, তার বিরুদ্ধে বায়াজিদ থানায় দুটি মামলা রয়েছে।