৫৫ বছর বয়সি হিন্দু মহিলাকে গণধর্ষনের পর হত্যা

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে অঞ্জলি দাসকে (৫৫) ধর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা হত্যা করে। খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে।
উপজেলার গুপ্তি পাশ্চিম ইউনিয়নের ৬ নম্বর খাজুরিয়া গ্রামের ধোপা বারীতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত অঞ্জলি দাস খাজুরিয়া গ্রামের ধোপা বাড়ির প্রয়াত ইন্দ্রজিৎ দাসের বিধবা স্ত্রী ।
স্থানীয়রা জানায়, অঞ্জলি দাসের ছোট বোন পূর্ণিমা ও শ্যালক খোকন মঙ্গলবার বিকেলে লক্ষ্মীপুর থেকে খাজুরিয়ায় তার বোনের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন। তিনি সেখানে এসে দরজাটি তালাবন্ধ দেখেন। তাই আমরা আশে পাশের লোক জনদের জিজ্ঞাসা করি । জিজ্ঞাসা করে জানতে পারি যে,
সোমবার বিকেল থেকে বাড়ির দরজা বন্ধ । তিনি কোথায় গেছে সেখানকার লোকজন বলতেই পারছে না । পরে আমরা ঘরের জানালায় উঁকি দিয়ে দেখি যে, অঞ্জলির রক্তাক্ত মৃত শরীর ঘরের ভিতরে বিছানায় পড়ে আছে । এক বছর আগে ইন্দ্রজিৎ মারা গেছেন।
স্থানীয় ইউপি সদস্য শাহ আলম জানান, খবর পেয়ে তিনি গ্রাম পুলিশকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছিলেন। লাশের অবস্থান দেখে মনে হয় দুর্বৃত্তরা ধর্ষণ করে মহিলাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে।
ফরিদগঞ্জ থানার ওসি আবদুর রকিব জানান, হত্যার কথা শুনে তারা ঘটনাস্থলে যায়। লাশ উদ্ধার করে পোস্টমর্টেমের জন্য প্রেরণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *