সুরজ রাজবংশীকে ভালবেসে বিয়ে করে সনাতন ধর্মে ফিরে এল তাবাস্সুম পারভীন

সুরজ রাজবংশীকে ভালবেসে বিয়ে করে সনাতন ধর্মে ফিরে এল তাবাস্সুম পারভীন

nkbarta সনাতনে স্বাগতম । মানুষের ধর্ম যে মনুষ্যত্ব , সে মনুষ্যত্বের শিক্ষা একমাত্র সনাতন ধর্মই দেয় । সনাতন ধর্ম ব্যতীত কোথায় মানুষের ধর্ম মনুষ্যত্বের কথা বলে না । তাই যারা বিভ্রান্ত নিজেদের ভুল বুঝতে পারছেন অথবা পেরেছেন তারা সময় থাকতে সনাতন ধর্মে ফিরে আসতেছেন । যাকে বলে ঘরওয়াপসি বা ঘরের মেয়ে অথবা ঘরের ছেলে ঘরেই ফিরে আসা । বেশি নয় , আজ থেকে ৬০০ বছর আগের কথাই ভাবুন । ভারতীয় উপমাহাদেশর সব মানুষ সনাতন ধর্ম অনুসারি ছিল । তারা বিভ্রান্ত হয়ে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ভারত কে টুকরো টুকরো করে সংস্কৃতিতে অপসংস্কৃতি করে নিজেরাই নরকে পতিত হয়ে যাচ্ছে । সেই নরক থেকে অনেকেই বের হয়ে সনাতনে ফিরে আসছে । সনাতনে তাদের স্বাগতম ।

উত্তর-পশ্চিম হাওড়ার মহানগর জেলার অন্তর্গত বেলুড় মঠ সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা শ্রী সুরজ রাজবংশী কে ভালবেসে আজ সামাজিকভাবে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন হাওড়ার ঘুষুড়ি নিবাসী তাবাস্সুম পারভীন । পুর্বে এরা কাগজে কলমে অর্থাৎ রেজিস্ট্রি করে বিয়ে করেছেন কিন্তু সামাজিক ভাবে কোন অনুষ্ঠান পালন করা হয় নি । কিন্তু আজ সনাতনি মিত্রদের প্রচেষ্টায় সামাজিক ভাবেই বিবাহ সম্পন্ন হল ।
তবে শ্রী সুরজ রাজবংশী কে অনেকভাবে প্রাণে মারার চেষ্টা করে তাবাসুসুম পারভীনের পরিবারের লোক , পাড়া প্রতিবেশি এবং আত্মীয় স্বজনরা । কিন্তু সনাতনি মিত্রদের প্রচেষ্টায় সুরজ রাজবংশীর কিছু হয় নি ।

মনে রাখতে হবে , সনাতন ধর্ম অনুসারি হিন্দুরা হল একে অপরের ভাই । তাই সনাতনিদের বিপদে আপদে সনাতনিদেরই দ্বাড়াতে হবে । কোন সম্প্রদায় কিন্তু দাড়াবে না । আর সনাতনিদের উচিত এক সনাতনি মিত্রর দোষ গুণ গোপন করে সনাতনি মিত্রদের প্রতি সহযোগীতার হাত দীর্ঘায়িত করা ।

তাবাসসুম পারভীনকে শুভেচ্ছা , যে ভ্রান্ত পথে থেকে বের হয়ে প্রকৃত সত্যর পথে , শান্তির পথে, আধ্যাত্মিকতার পথে আসার জন্য । আর বড় কথা হল , একমাত্র সনাতন ধর্মই নারীদের দেবীর আসনে বসিয়েছেন , এবং তালাকের ও ভয় নেই এখানে , যে ভবিষ্যত্বে একাধিক পুরুষের শয্যাসঙ্গী হতে হবে ।
বজরঙ্গ দলকে অসংখ্য ধন্যবাদ । সুরজ রাজবংশীর সাথে থাকার জন্য । প্রয়োজনে – কোন বিভ্রান্ত পথিক যদি সনাতনে ফিরে আসতে চায় তাদের কর্মসংস্থান , থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা , এরকম সংগঠন সনাতনিদের করা উচিত । কারন অনেক পরিবার আছে , কোন বিভ্রান্ত পথিক যদি সনাতনি কে ভালবাসে সনাতনে ফিরে আসে তখন সনাতনি মিত্র পরিবার থেকে সাপোর্ট না পেলেও যেন সনাতন সংগঠন থাকা , খাওয়া এবং কর্ম সংস্থানের ব্যবস্থা করে দিয়ে মাথার উপর থেকে বিপদ সরে না যাওয়া অব্দি যেন পূর্ণ সহযোগিতা করে । এরকম সংগঠনের বিশেষ প্রয়োজন সনাতন সমাজে , তাহলে অনেক বিভ্রান্ত পথিক সনাতনে ফিরে আসবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *