মন্দিরের মাটিতে মাথা কেটে কুকুরকে খাওয়ানো হুমকি ইসলামাবাদে মন্দির নির্মান হলে

ইমরান খানের সরকার সম্প্রতি ইসলামাবাদে প্রথম হিন্দু মন্দিরের নির্মাণ কাজে বাধা দিয়েছে। এই সিদ্ধান্তটি পাকিস্তানের ক্ষমতাসীন জোটের মিত্র পাকিস্তান মুসলিম লীগ-কোয়াদ (পিএমএল-কিউ) -এর তীব্র আপত্তির মুখেই ইসলামাবাদে মন্দির নির্মান কাজে পাকিস্তান প্রশাসন বাধা দিল । বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তীব্র বিতর্কের জন্ম দিয়েছে এবং সেই সাথে সমালোচনার ঝড় ও । এই পরিস্থিতিতে, এরকম আবহেই একজন পাকিস্তানি আলেম হুমকি দিয়েছিলেন যারা হিন্দু মন্দির নির্মাণে সমর্থন করছেন তাদের মাথা কেটে ফেলবেন এবং কুকুরকে খাওয়াবেন। ঘটনার ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর থেকে নেটিজেনরা তার নিন্দায় সোচ্চার হয়েছেন।
ভাইরাল ৩০-সেকেন্ডের ভিডিওতে পাকিস্তানি আলেমকে বলতে শোনা গেছে, “যারা ইসলামাবাদের কেন্দ্রে হিন্দু মন্দির নির্মাণের জন্য চেষ্টা করছে তাদের আমি সতর্ক করছি।” যদি তারা তাদের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন না করে তবে আমরা মন্দিরের মাটিতেই তাদের মাথা কেটে দেব এবং তাদের শিরচ্ছেদকৃত মাথা কুকুরকে দিয়ে খাওয়াব। ‘অনেক নেটিজেন এখনও প্রশ্ন করছেন যে আলেমকে কেন শাস্তি দেওয়া হয়নি এখনো , এরকম মনোভাব ব্যক্ত করার জন্য ।

এদিকে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল পাকিস্তান সরকারকে তার সিদ্ধান্তের বিষয়ে পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানিয়েছে। তারা একটি টুইট করে বলেছিল, “প্রত্যেকেরই উপাসনার অধিকার রয়েছে।” সুতরাং, পাকিস্তান সরকারের উচিত হ’ল ইসলামাবাদে কোনও হিন্দু মন্দির তৈরির সিদ্ধান্তটিকে পরিবর্তন না করে ইসলামাবাদের বুকেই মন্দির নির্মাণে অনুমোদন দেওয়া উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *