মজিদ খান থেকে ধর্ম দাশ হওয়ার গল্প

গল্পটি আমার নয় মজিদ খান খান নামের একজনের ।

প্রিয় বন্ধুরা, আজ আমি আপনাকে আমার জীবনের একটি সত্যি গল্প বলব।
আমি একটি মুসলিম পরিবারে বড় হয়েছি। আমার বাবা একজন মুসলিম ছিলেন এবং আমার মা ছিলেন হিন্দু যিনি ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন। আমাকে বাধ্য হয়ে মসজিদে গিয়ে ইসলাম সম্পর্কে জানতে হয়েছিল। তবে আমি কখনই এটি গ্রহণ করতে পারি না। প্রথমে আমি আমার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি ইসলামের প্রশংসা করার জন্য। কিন্তু যত সময় যায় ততই আমি দেখতে পেলাম যে, অনেক উত্তরহীন প্রশ্নই আমাকে দ্বিধায় ফেলেছে। যেখানে আমি অসন্তুষ্ট বোধ করি। আমি ইসলাম ধর্ম পালন করি আমার কৈশর বয়স পর্যন্ত যদিও মন থেকে আমি কখনই ইসলামে সত্যিকারের শান্তি পাইনি। আর ইসলামে যে প্রকৃত শান্তি আছে তার সন্ধান করেও খুঁজে পাই নি ।

আবার আমি ইসলামকে প্রকৃত ভাবে জানার জন্য অনেক প্রশ্ন করতে শুরু করেছি এবং শেষ পর্যন্ত এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি যে এটা আমার পক্ষে নয়। কারণ আমি আর নিজেকে মিথ্যা বলতে পারি না। আধ্যাত্মিক বা অভ্যন্তরীণ শান্তি ও দিকনির্দেশের জন্য আমার তৃষ্ণা নিবারণের জন্য এখন আমাকে আলাদা দিকের সন্ধান করতে হবে। তাই আমার যাত্রা শুরু হয়েছিল অন্যভাবে।

প্রথমে আমি খ্রিস্টধর্ম অন্বেষণ শুরু করি। এটি দেখতে সুন্দর লাগছিল তবে আমি আরও জানার সাথে সাথে আরও আরও প্রশ্ন আসতে শুরু করে কৌতূহলি মনে যার উত্তর আজ অব্দি পাই নি এবং আবার আমি আটকে গেলাম। তবে আমি গভীরভাবে জানতাম যে আমাকে কোথাও যেতে হবে। তবে ঠিক কী এবং কোথায় জানি না?

এই মুহুর্তে আমি কেবল জানতাম যে ইসলাম এবং খ্রিস্টধর্মের শিক্ষাগুলি সত্যই আমাকে প্রভাবিত করে না। একটি মুসলিম পরিবার কখনই সমর্থন করে না যে, যে পরিবারের সদস্য হিন্দু ধর্ম গ্রহন করে তাদের সাথেই বসবাস করুক ।তাই হিন্দু ধর্ম বিষয়ে তেমন কোন প্রশ্ন উদয় হয় নি আমার মনে । কারণ আমার বাবা এটি কখনও অনুমতি দেননি।যদি আমার মা হিন্দু সম্প্রদায়ের একজন এবং তিনি তার ধর্ম ত্যাগ করেই আমাদের পরিবারকে আপন করেছেন ।

আমি যে পরিবারের সন্তান , অর্থাৎ আমার বাবা ও তার পরিবারের প্রত্যেক সদস্যই মুসলিম আর একমাত্র আমি যার গর্ভে ধারণ করি অর্থাৎ আমার মা ছিলেন একমাত্র সনাতন ধর্ম অনুসারি হিন্দু । অর্থাৎ আমার পূর্ব পুরষদের শতকরা ৯০ ভাগই ছিল ভারতীয় অর্থাৎ সনাতন ধর্ম অনুসারি । আমি এসব জানতে পেরেছি কারণ আমার মধ্যে প্রাচ্য আত্মীয় ছিল , এই জন্য আমি বলতে কখনো সংকোচ করি না , যে আমার গায়ে সনাতন ধর্মের রক্ত নেই । এটা আমি বিশ্বাস করতাম, সনাতন ধর্মের রক্ত আমার রক্তে বইছে ।

একসময় আমি স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিলাম যেখানে আমি শিব নাচের স্বপ্ন দেখব। আমি মা দুর্গার স্বপ্ন দেখেছি যেখানে তারা আমাকে মন্দির, দর্শন ইত্যাদি দেখায় । আমি সেই আহ্বানটি অনুসরণ করি এবং সনাতন ধর্মে মুগ্ধ হয়ে যাই । এর পর আগ্রহ বেড়ে যায় আমার সনাতন ধর্মের প্রতি , এই জন্য আমি সনাতন ধর্ম সম্পর্কে জানার জন্য প্রচুর পড়তে শুরু করি । এটি আমার শিকর সম্পর্কে অবগত করে আর প্রকৃত শান্তি ও আধ্যাত্মিকতার পথ নিদর্শন করে আর আমি আমার অস্তিত্ব খুঁজে পাই । সিদ্ধান্ত নেই সনাতন ধর্মে ফিরে আসব । জীবনে একবারের জন্য আমি এখন আমার অভ্যন্তরীণ শান্তি, সুখ এবং ঐশ্বরিক ভালবাসা অবশেষে জাগ্রত বোধ করি। আমি আমার পূর্বপুরুষদের ধর্ম সনাতন ধর্মে ফিরে এসে ধর্ম দাস নামটি গ্রহণ করি। আর আমার নতুন নাম হয় ধর্ম দাশ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *