ভারতের হরিয়ানায় স্বেচ্ছায় ৭ টি পরিবার সনাতন ধর্মে ফিরে এসে পালন করছে হিন্দু হিন্দু রীতিনীতি

হরিয়ানায়, অবসরপ্রাপ্ত উপ-পরিদর্শকসহ সাতটি পরিবার স্বেচ্ছায় সনাতন ধর্মে ফিরে এসে সনাতন ধর্মে ফিরে এসে হিন্দু হল ।
নয়াদিল্লি: দিল্লি থেকে মাত্র ৬০০ কিলোমিটার দূরে হরিয়ানার ভোগীপুর গ্রাম আজকাল আলোচনা ও সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। কারণ সেই গ্রামের ৭ টি মুসলিম পরিবার স্বেচ্ছায় সনাতন ধর্মে ফিরে এসে হিন্দু হয়েছে । তাদের সনাতন ধর্ম গ্রহণ করার কোন ভয় দেখানো হয়নি, বা কোনও প্রলোভনও দেওয়া হয়নি । তারা সনাতন ধর্মে দীক্ষিত হয়ে সনাতন ধর্মানুসারি হিন্দু হওয়ার আগে তারা সনাতন ধর্মের নিয়ম নীতি পালন করত । শুধু ওই পরিবারগুলি জীবনের শেষকাজ ইসলামিক আচার অনুসারে দাহ করা হয়েছিল । এবার সনাতন ধর্ম গ্রহণ করার পরে তারা সনাতন রীতি অনুসারে সমস্ত বিধি মেনে চলেন ।
এই সমস্ত পরিবারের হাতে গীতা হস্তান্তর করেছেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের মন্ডল প্রধান সুমিত অ্যানি এবং সনাতন ধর্মে তাদের স্বাগত জানানো হয়েছে । অবসরপ্রাপ্ত উপ-পরিদর্শক বলবীর সিং একসময় মুসলিম ছিলেনর এখন সনাতন ধর্মে দীক্ষিত হয়ে হিন্দুদের আপন করে নিয়েছেন ।
তাদের মধ্যে অনেকে বলেছিলেন যে সত্য যে তারা এখন সনাতন ধর্ম গ্রহণ করেছেন । তবে এর অনেক আগে থেকে তারা সনাতন রীতিনীতি অনুসারে সবকিছু পালন করত। সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, সনাতন ধর্মে ধর্মান্তরিত সুরেশ কুমার বলেছিলেন, “আমাদের পূর্বপুরুষ কয়েক দশক আগে সনাতন ধর্মানুসারি ছিলেন, কিন্তু তারা ইসলামে ধর্মান্তরিত হয়েছিল।”
বেশ কয়েক বছর ধরে তারা সনাতন ধর্মে ফিরে আসার জন্য প্রক্রিয়া শুরু করে এবং তারা সনাতন রীতিনীতি অনুসরণ করতে শুরু করে । তারা সবাই ধোপা সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত । এদের ৭ টি পরিবার যারা সনাতন ধর্মে ফিরে এসে হিন্দু হল । তার আনন্দিত যে, তারা পুর্বপুরুষদের ধর্ম , সনাতনে ফিরে আসতে পেরেছে । এবার তারা মুসলিম শব্দটি সরিয়ে মনে প্রাণে সনাতন ধর্মে ফিরে এস প্রকৃত হিন্দুতে পরিণত হয়েছে এবং গ্রামবাসীরাও তাদের স্বাগত জানিয়েছে সনাতন ধর্মে ফিরে আসার জন্য ।
সনাতন ধর্মে ধর্মান্তরিত সমস্ত পরিবারের সদস্যরা বলেছেন যে তাদের ধর্ম পরিবর্তন করার জন্য তাদের উপর চাপ দেওয়া হয়নি বা লোভ দেখানো হয়নি। তারা স্বেচ্ছায় সনাতন ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *