প্রতিবেশি মুসিলমের দ্বারাই সংখ্যালঘু হিন্দু বাড়িতে হামলা

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদের প্রাক্তন হিন্দু মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, রমা রানী মজুমদার শোভা (৫৫) কে ইসমাইল হাওলাদার নামে এক প্রতিদ্বন্দ্বী মাদক ব্যবসায়ীর মাথায় ও দেহে একের পর এক বিরতীহীন ছুরিকাঘাত করে । রমা রানী এখন উপজেলা হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে লড়াই করছেন।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) রাত্রি ৯ টার দিকে পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া শহরের দক্ষিণ বন্দর-সুয়েজগেট এলাকায় তার বাসভবনে তাকে আক্রমণ করা হয়। চিকিত্সকরা জানিয়েছেন, ছয়টি স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাঁর মাথায় আঘাত করা হয়েছিল।
হামলাকারী ইসমাইল একই এলাকার রতন হাওলাদারের ছেলে। প্রাক্তন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সম্প্রতি একটি মাদকের মামলায় জামিনে মুক্তি পেয়ে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটায় । তার মা ও বোন এই মাদক মামলায় আসামি বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, প্রাক্তন উপজেলা পরিষদের প্রাক্তন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও মঠবাড়িয়া শহরের দক্ষিণবন্দরের সুয়েজগেট মহল্লার বাসিন্দা রমা রানী মজুমদার শোভার প্রতিবেশীর ছেলে ইসমাইল হাওলাদারের সাথে জমির সীমানা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। রতন হাওলাদাদের ছেলে ইসলামাইল হাওলাদার । প্রতিপক্ষ ইসমাইল নেশা ও মাদক কেনা বেচা নিয়ে জড়িত থাকার কারণে পুলিশ ইসমাইল ও তার পরিবারের সদস্যদের বেশ কয়েকবার গ্রেপ্তার করে।
কিছুদিন আগে একটি মাদকের মামলায় তিনি জামিনে মুক্তি পেয়ে দেশে ফিরে আসেন । বৃহস্পতিবার রাত ৯ টার দিকে রমা রানী রান্নাঘরে রান্নায় ব্যস্ত ছিলেন। এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকায় ওৎ পেতে থাকা ইসমাইল তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে বিরতীহিনভাবে কোপাতে শুরু করে। প্রতিবেশীরা তার চিৎকারে ছুটে এসে হামলাকারী ইসমাইল পালিয়ে যায়। প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
কর্তব্যরত মাঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সার্জন মোঃ রাকিবুর রহমান জানান, প্রাক্তন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের মাথায় ছয়টি স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত আছে । তবে তিনি কিছুটা নিরাপদে আছেন। তাকে যথাযথ চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাসুদুজ্জামান মিলু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচকে জানিয়েছেন, আহত শোভা রানী থানায় ০৫-০৭-২০২০ তারিখে লিখিত অভিযোগ করেছেন। দায়ের রজ্জু করা মামলা নং ৪৪৭/৩২৪/৩২৬/৩০৭/৫০৬/৩৭৯/১১৪ । এখনো পর্যন্ত কোনও আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। আর অভিযুক্তরা পলাতক।
অ্যাড: রবীন্দ্র ঘোষ স্যার বলেন, হাসপাতালে আহত শোভা রানির আমার নিকট অশ্রু কণ্ঠে বলেন , “আমি এই অঞ্চলের সহসভাপতি হিসাবে নির্বাচিত হয়েছি। আমি শান্তি বজায় রাখার চেষ্টা করছি অঞ্চলটি। আমার উপর আক্রমণ করা হয় এবং আমাকে হত্যার চেষ্টা ও করা হয় , আমি আপনাদের আইনি সহায়তা চাই ।
বাংলাদেশে মাইনরিটি ওয়াচের মঠবাড়িয়া সংবাদদাতা সূর্য কুমার বৈরাগী আহত রমা রানী মজুমদার শোভা কে দেখতে গিয়ে তার একটি ভিডিও ফুটেজ রেকর্ড করেছেন।
বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচ এই জাতীয় সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানায়। তারা অবিলম্বে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *