নিজের ছোট ভাইয়ের বউকে ৯ দিন ধরে ধর্ষন

শ্রীবরদী উপজেলা সদরে এক গৃহবধূ (১৮) তার ভাসুর দ্বারা নয় দিন ধরে ধর্ষিত হয়েছে । গৃহবধূর শাশুড়ী এই কাজটিতে তার ভাসুরকে সহায়তা করেছিলেন বলে জানা গেছে । ঘরে তালাবদ্ধ করে ওই গৃহ বধুকে ধর্ষন করেছে , যেন বাইরে থেকে বুঝা না যায় , এমন অভিযোগ ও পাওয়া গেছে ।

গৃহবধূ ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে এসে বুধবার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন তারই পরিপ্রেক্ষিতে পরে ধর্ষনের অভিযোগে পুলিশ ২৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে ।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পাঁচ মাস আগে মেয়েটির বিয়ে হয়েছিল। বিয়ের পর থেকেই তার ভাসুর তার প্রতি কুনজর দিতে থাকে এবং প্রেমে পড়ে যায়। তার স্বামী অটোরিকশা চালক। প্রতিদিন সকালে তিনি অটোরিকশা নিয়ে বাইরে যান ভাড়ার জন্য আর উপার্জন শেষে রাতে ফিরে আসেন বাড়িতে ।

এ সুযোগকে কাজে লাগায় তার ভাসুর । ২৮ মে তার শ্বশুর বাড়িতে তাকে ধর্ষণ করে তার ভাসুর । ধর্ষন করার ঘটনাটি যেন তার স্বামী বা অন্য কাউকে না বলে সে জন্য তাকে ভয় ভীতি দেখানো হয় ।

রোজ সকালে গৃহবধূর স্বামী বাড়ি থেকে বের হওয়ার সাথে সাথে তার ভাসুর তাকে ঘরে তালাবদ্ধ করে এবং ধর্ষণ করে। বিবেকের দংশনে দংশিত হয়ে গৃহবধু নয় দিন এভাবে চলার পরে তিনি স্বামীকে সমস্ত ঘটনার কথা জানিয়ে দেন । সব কিছু শোনার পর সেই মুহুর্তে, তার স্বামী নিজেই নিজেকে হত্যার চেষ্টা করে। পরে তারশ্বশুর ও শাশুড়ি তার ছেলেকে পুনরায় বিয়ে করতে বলে ।

নিরুপায় গৃহবধূ আইনের শরনাপন্ন হতে চাইলে তার স্বামী তাকে নিষেধ করে । এক পর্যায়ে গৃহবধূ বাড়ি থেকে পালিয়ে বাবার বাড়িতে যেতে সক্ষম হন। তারপরেও তিনি কয়েকদিন লুকিয়েছিলেন যখন শ্বশুর বাড়ির লোকেরা তাকে হুমকি দিয়ে চলে যাতে থানায় মামলা না করতে পারে । সেখান থেকে বুধবার তিনি থানায় গিয়ে ধর্ষনের মামালা দায়ের করেন ।

শ্রীবরদী থানার ওসি রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, “এই ঘটনায় গৃহবধূ বাদী হয়ে তার ভাসুর, শাশুড়ী এবং শ্বশুরের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।” তার ভাসুরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে । তার স্বামী সহ শ্বশুর ও শাশুড়িকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *