চীনের তৈরী সিসিটিভি দিল্লীতে – তথ্য চুরি হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা

চায়না চাইলে ঘরে বসে ভারতকে পর্যবেক্ষণ করতে পারে। দিল্লির রাস্তায় প্রায় দেড় লক্ষ চীনা সিসিটিভি ঘুরে বেড়াচ্ছে।

ভারত-চীন যুদ্ধের বাতাসে এমন বিস্ফোরক তথ্য পাওয়া গেছে। সরকার ভারতে ৫৯ টি চাইনিজ অ্যাপ ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে। এদিকে, দেড় লক্ষ চীনা সংস্থা তৈরির সিসিটিভিগুলি দিল্লির রাস্তায় চলছে।

দিল্লির অনেক বাসিন্দা তথ্য চুরির অভিযোগ করেছিলেন। আসলে, ইউপি সরকার দিল্লির লোকদের সুরক্ষার জন্য 1.5 লক্ষ সিসিটিভি স্থাপন করেছিল। এই সমস্ত সিসিটিভি চীনা সংস্থা হিকভিশন তৈরি করেছিল। সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে একটি অ্যাপটি মোবাইলে ইনস্টল করতে হবে। তার বিরুদ্ধে তথ্য চুরির অভিযোগ রয়েছে।

অ্যাপ্লিকেশনটির প্রধান সার্ভারটি চীনে। ফলস্বরূপ, বিশেষজ্ঞরা বিশ্বাস করেন যে চীন কোনও বাধা ছাড়াই দিল্লি পর্যবেক্ষণ করতে পারে। এর আগে হিকভিশনের বিরুদ্ধে তথ্য চুরির অভিযোগ আনা হয়েছিল।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন যে তাঁর সরকার যে হিকভিশন ব্যবহার করবে তা থেকে তিনি কোনও পণ্য কিনবেন না। কারণ তারা নিরীক্ষণ করে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীকে সাফ করা হলেও অকারণে রাজনীতি করা হচ্ছে। তাঁর সরকার কেন্দ্রের পিএসইউকে সিসিটিভি স্থাপনের নির্দেশ দিয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *