করোনা ভ্যাকসিন বিনা মূল্যেই পাবে বাংলাদেশ : স্বাস্থ্যসচিব

পৃথিবীতে করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে এটি প্রথমে বাংলাদেশে আসবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিভাগের সচিব মো। আবদুল মান্নান। “যুক্তরাজ্য এবং চীন সহ অনেক দেশ ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পথে রয়েছে,” তিনি বলেছিলেন। তথ্য মতে, চার হাজার ডলারেরও কম মাথাপিছু আয়ের দেশগুলি এই ভ্যাকসিনটি বিনা মূল্যে পাবে। যেহেতু বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় দুই হাজার মার্কিন ডলারের কাছাকাছি,তাই বাংলাদেশ এই টিকা বিনামূল্যে প্রদান করবে।

সোমবার সকালে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সভা কক্ষে অনলাইন বৈঠক প্ল্যাটফর্ম ‘জুম’ এর মাধ্যমে জাতীয় কারিগরি উপদেষ্টা কমিটির বিশেষ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সচিব এ মন্তব্য করেন।

অনলাইন বৈঠকে স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ, স্বাস্থ্য পরিষেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) শেখ মুজিবুর রহমান এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রকের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সভাটি পরিচালনা করার দায়িত্বে ছিলেন জাতীয় কারিগরি উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ।
আবদুল মান্নান বলেছেন, “দেশের কমপক্ষে ৮০ শতাংশ মানুষকে ধীরে ধীরে এই ভ্যাকসিন বিতরণের সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে।” একই সাথে, ভ্যাকসিনটি প্রক্রিয়াজাতকরণ ও বিতরণ করার জন্য সরকার যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

স্বাস্থ্য সচিব বলেন, বর্তমানে সরকারের নিকট প্রায় তিন লাখ কীট মজুদ রয়েছে এবং আরো কীট আমদানির কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে এর পরেও। যদি আপনাকে প্রতিদিন ১০ হাজার পরীক্ষা করতে হয়, তবে আপনি সংরক্ষণ করা কীট দিয়ে এটি কমপক্ষে আরও এক মাস চালাতে পারেন। অবশ্যই, আমরা আরও কিছু কীটর আমদানি করতে সক্ষম হব। তাই দেশে করোনার পরীক্ষায় কোনও সংকট নেই। অবশ্যই করোনার পরীক্ষা বাড়াতে আরও উদ্যোগ নেওয়া হবে। ‘

বিএসএমএমইউর উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়া বলেছেন, দেশে বর্তমানে করোনার পরীক্ষার সংখ্যা কমেছে। করোনার মোকাবেলায় পরীক্ষার সংখ্যা আরও বাড়ানো দরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *