আদর্শ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির বৈশিষ্ট্যসমূহ এবং সফল প্রশিক্ষণ কর্মসূচির বাস্তবায়ন

আদর্শ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির বৈশিষ্ট্যসমূহ

সঠিকভাবে ও পর্যাপ্তভাবে কর্মীদের প্রশিক্ষণ দান করার জন্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচি প্রণয়ন করা একান্ত আবশ্যক ।একটি আদর্শ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির যে সকল বৈশিষ্ট্য থাকা উচিত বলে বিশেষজ্ঞগণ মনে করেন তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো-
১. লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যঃ নির্ধারিত লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও প্রয়োজনীয়তার দিকে খেয়াল রেখে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি প্রণয়ন করতে হবে ।
২. সময়, অর্থ ও পরিস্থিতিঃ প্রতিষ্ঠানের প্রকৃতি, পরিস্থিতি ও অর্থনৈতিক অবস্থা, সঞ্চয় এবং সময় বিবেচনা করে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি প্রণয়ন করতে হয় । পরিস্থিতি , অর্থ ও সময় অনুকূলে থাকলে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি দীর্ঘায়িত এবং জোড়দার করা যায় ।
৩. নমনীয়তাঃ পরিবর্তিত অবস্থা অনুযারি যেন প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা নেয়া যায় তার সুবন্দোবস্ত থাকতে হবে ।
৪. প্রশিক্ষন বিভাগঃ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আওতাধীন সকল নির্দেশাবলি অভিজ্ঞ জ্যৈষ্ঠ কর্মকর্তাদের মাধ্যমে আসা উচিত । বৃহদায়তন প্রতিষ্ঠানগুলোতে একটি প্রশিক্ষন বিভাগ খুলে অভিজ্ঞ এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রশিক্ষক দ্বারা সাফল্যজনকভাবে শিক্ষাদান করা যেতে পারে ।

৫. তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক জ্ঞানঃ প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক উভয় ধরনের শিক্ষণ পদ্ধতি চালূ থাকতে হবে । তাত্ত্বিক শিক্ষণের চেয়ে হাতে কলমে শিক্ষনের দিকে বেশি প্রাধান্য দিতে হবে ।

৬. আধুনিক চিন্তাধারাঃ আধুনিক চিন্তাধারায় যেন অনু্প্রবেশ ঘটানো যায় তার জন্ম তত্ত্বাবধায়, নির্বাহী এবং অন্যান্য প্রশিক্ষকদের পূর্বেই আধুনিক প্রশিক্ষণ বিষয়ে শিক্ষা ও কলাকৌশলর প্রয়োগ ঘটাতে হবে ।
৭. উভয় পক্ষের স্বার্থ ও লক্ষ্যঃ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির দ্বারা যেন প্রতিষ্ঠান এবং কর্মচারী উভয়ই উপকৃত হতে পারেন তার দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে ।
৮. মূল্যায়নঃ প্রশিক্ষন ফলপ্রসু হচ্ছে কি না তা যাচাই করার জন্য প্রশিক্ষনের পূর্ববর্তী ও পরবর্তী কাজের হিসাব নিতে হবে ।
৯. নির্দেশের কৌশলঃ প্রশিক্ষকের দক্ষতার উপর একটি প্রশিক্ষণ কর্মসূচির সাফল্য দক্ষতার উপর একটি প্রশিক্ষণ কর্মসূচির সাফল্য বহুলাংশে নির্ভর করে । একটি সংগঠিত , পদ্ধতিগত এবং সহজ প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত নির্দেশ তখনই গ্রহণযোগ্য হয়, যখন প্রশিক্ষকগণ নির্দেশদান কৌশল সম্পর্কে সম্যক ধারণা রাখেন ।
১০. ফলাফলের জ্ঞানঃ প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে মাঝে প্রশিক্ষণের অগ্রগতি সম্বন্ধে জানাতে হবে । ফলাফলেরৈ অগ্রগতি সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা পেলে প্রশিক্ষণার্থীরা নিজেদের ভূল-ভ্রান্তিকে সঠিকভাবে চিহ্নিত করতে পারে এবং তা সংশোধনের অবকাশ পায় ।
উপরিউক্ত আদর্শ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির বৈশিষ্ট্য গুলো আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায় যে, প্রশিক্ষণ কর্মসূচিকে সার্থক করে তুলতে হলে প্রশিক্ষণ ব্যবস্থাপনাকে অবশ্যই দক্ষ হতে হবে ।

সফল প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়নে বিবেচ্য বিষয়ঃ

প্রশিক্ষণ বাস্তবায়ন একটি জটিল প্রক্রিয়া । কর্মীদের কার্যসম্পাদনের জ্ঞান ও দ্ক্ষতা বৃদ্ধি এবং প্রযুক্তিগত ও আচরণগত নৈপূণ্য বৃদ্ধি করে প্রাতিষ্ঠানিক লক্ষ্যৗ অর্জনকে গতিশীল করার সংঘবদ্ধ প্রচেষ্টা হ্চ্ছে প্রশিক্ষণ । প্রশিক্ষণ কর্মসূচির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে প্রশিক্ষণ বাস্তবায়নের নিবেচ্য বিয়ষ ।
নিম্নে একটি সফল প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়নের বিবেচ্য বিয়য়গেুলো আলোচনা করা হলোঃ
১. প্রশিক্ষণদাতার প্রস্তুতি গ্রহণঃ প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়নের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন বিষয় হলো প্রশিক্ষণদাতার প্রস্তুতি গ্রহণ । প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আরম্ভ করার পূর্বেই প্রশিক্ষণদাতাকে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হয় । প্রশিক্ষণদাতাকে অবশ্যই ঠিক কতে হবে তিনি কী বিষয়ের ও কোন পদ্ধতিতে প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন ।
২. প্রশিক্ষণ গ্রহীতার প্রস্তুতি গ্রহণঃ প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়নের পরের পর্যায়ে হলো প্রশিক্ষণ গ্রহীতার প্রস্তুতি গ্রহণ । আর এ পর্যায়ের প্রধান কাজ হলো প্রশিক্ষণ প্রার্থীকে সহজ করে নেয়া । তিনি এমনভাবে প্রশিক্ষণ দেবেন যাতে কর্মীগণ কার্যভার সম্পর্কে আশংকা মুক্ত থাকেন । মূলকথা হলো প্রশিক্ষণার্থীগণকে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি গ্রহণ করার মতো মানসিক প্রস্তুতি নিতে হবে ।
৩. উপায় উপকরণ সংগ্রহঃ প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়নের সর্বশেষ পর্যায় হলো উপায় উপকরণ সংগ্রহ । প্রশিক্ষন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য্ প্রশিক্ষককে প্রশিক্ষণের প্রয়োজনীয় সকল উপকরণ যেমন- কাগজ, কলম, পেন্সিল, গ্রাফ, পেপার , বিভিন্ন প্রযুক্তিগত উপকরণ, মাল্টিমিডিয়া উপকরণ প্রভৃতির প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হবে । এছাড়াও প্রশিক্ষণার্থীদের বাসস্থান ও আহারাদির ব্যবস্থা করাও এই পর্যায়ের কাজ । অতএব মোট কথা এ পর্যায়ের প্রশিক্ষনার্থীদের প্রয়োজনীয় সকল উপকরণ সংগ্রহ করতে হবে ।
অতএব আলোচনার পরিশেষে বলা যায় যে, প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য উপরের বিবেচ্য বিষয় গুলো খুব গুরত্ব সহকারে দেখতে হবে । উপরের কাজ গুলো সঠিক ভাবে পালন করতে পারলে প্রশিক্ষণ সফল হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *